1
Judgment : High Court Division
(If you feel problem with font, please, download Bangla font from Downloads Link)
 
Case Category : 
Case Type
Case Number
Year
Parties
Short Description
 

Case Number Parties Short Description
1 সিফার্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড বনাম জিয়াসু সিটিজ ইসেন কোঃ লিঃ
2 Md. Waliullah Apu Vs. Government of the People’s Republic of Bangladesh and others Taking notice of the above scenario, we are also constrained to direct the 1) Secretary, Cabinet Division, 2) the Secretary (সুরক্ষা ও সেবা), Ministry of Home Affairs and all the 3) District Magistrate to take necessary steps for providing the certified copies of the documents and order passed by the Executive Magistrate acted under Mobile Court Act,2009 to the concerned person/convict within a period of 05(five) days from the date of receiving the application for the same
3 মো: মাসুদুল হক মাসুদ বনাম রাষ্ট্র উপরোক্ত আলোচনা এবং সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় আদালত আদেশ প্রদান করছে যে, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ধারা ৪৪ অনুসারে ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠা কিংবা গেজেট প্রকাশের মাধ্যমে বিকল্প আদালতকে ক্ষমতা না দেয়া অথবা ট্রাইব্যুনাল সংক্রান্ত আইনের বিধান সংশোধন না হওয়া পর্যন্ত মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৮ এর অধীনে দায়েরকৃত সকল মামলার বিচারিক কার্যক্রম ফৌজদারী কার্যবিধি ধারা ৫(২) অনুসরনে ঐ কার্যবিধির ২য় তপসিলে উল্লেখিত “অন্যান্য আইনসমূহের অধীনে অপরাধ (offences against other laws)” বিধান অনুযায়ী পরিচালিত হবে।
4 মোঃ নাজমুল হুদা ওরফে নাজমুর হুদা বনাম রাষ্ট্র ও অন্য বিজ্ঞ দায়রা জজ, নড়াইল ফৌজদারী কার্যবিধির ২৬৫সি ধারার দরখাস্তটি নিষ্পত্তির সময়ে মামলার এজাহার, অভিযোগপত্র, সাক্ষীদের ফৌজদারী কার্যবিধির ধারা ১৬১ অনুসারে প্রদত্ত জবানবন্দীসমূহ, সুরতহাল ও ময়না তদন্ত প্রতিবেদন অর্থ্যাৎ মামলার নথি ও তদ্সঙ্গে দাখিলকৃত কাগজাদি আদৌ বিবেচনায় না নিয়ে শুধুমাত্র আসামী পক্ষের আত্মসমর্থনের কাগজাদি/বক্তব্য এবং পেশাগত অবস্থান বিবেচনায় নিয়ে প্রতিপক্ষ নং-২ কে মামলা হতে অব্যাহতি দেয়ার বিষয়টি আমাদের কাছে শুধু বিষ্ময়করই মনে হয়নি বরং বিজ্ঞ দায়রা জজের দায়রা মামলা পরিচালনার যোগ্যতা এবং ফৌজদারী আইন সম্পর্কে তাঁর জ্ঞান ও ধারনা সম্পর্কে যুক্তিসংগত সন্দেহের (reasonable suspicion) সৃষ্টি করেছে।
5 Md. Jony Chowdhury Vs. The State and another The Negotiable Instruments Act, 1881 (shortly N.I. Act) is silent about compromise of offences under the Act. But the Act does not make any provision therein prohibiting such compromise. Be that as it may, since N.I. Act proceeding arises out of monetary transaction and the proceeding is a quasi civil and quasi criminal in nature and maximum sentence under the law is one year inasmuch as that our criminal administration encourages compromise at any stage of the proceeding as well as at appellate and revisional stage, I am of the view that the dispute between the parties in N.I Act proceeding may be resolved out of Court by the parties on compromise and the same should be allowed by the Court at any stage of the proceeding even at appellate and revisional stage.
6 Md. Selim and another Vs. The State (a) The Court of Sessions/ Magistrates are empowered to grant bail to a convicted person against whom such court sentenced to imprisonment for a term not exceeding one year with a view to giving the convicted person an opportunity to prefer appeal to higher forum after fulfilling the requirements under section 426(2A) of the Code of Criminal Procedure.
(b) The Court of Sessions/ Magistrates have got no jurisdiction to grant bail to a convicted person under section 426(2A) of the Code of Criminal Procedure when the sentence of imprisonment exceeds one year.
(c) No appellate court or it’s inferior court is empowered to grant bail to a convicted person whose sentence of imprisonment has been affirmed/modified in appeal by the appellate court with a view to giving the convicted person an opportunity to prefer revision to higher forum.
(d) No Magistrate shall have jurisdiction to grant a convicted person on bail against whom a sentence of imprisonment has passed by its superior court.
7 Mohammad Abdul Kader alias Karim Vs. The State Section ‘138A’ has been inserted in Negotiable Instruments Act, 1881 by section 3 of the Negotiable Instruments (Amendment) Act, 2006 (Act No. III of 2006). The provision of section 138A is clear and unambiguous. By inserting section 138A in the original NI Act, 1881 the parliament has intentionally made a bar in preferring an appeal against any order of sentence under sub-section (1) of section 138. By using the words “notwithstanding anything contained in the Code of Criminal Procedure, 1898” and the words “unless an amount of not less than fifty per cent of the amount of the dishonored cheque is deposited before filing the appeal in the Court which awarded the sentence” clearly suggest that the provisions of the code of criminal procedure in respect of preferring appeal under NI Act will not be applicable and before filing the appeal 50% of the amount of the dishonored cheque is to be deposited in the Court which awarded the sentence ( underlined to give emphases). The Court which awarded the sentence specifically indicates that said amount must be deposited in the Court who awarded the sentence, nothing more nothing less inasmuch as that after awarding sentence under sub-section (1) of section 138, receipt of even total dues by the complainant from the convict will not fulfill the requirement of section 138A of the NI Act.
8 আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি বনাম রাষ্ট্র উপরোক্ত বিবেচনায় আদালতের সুচিন্তিত অভিমত এই যে, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের আদালতে উপস্থাপনের পূর্বেই গণমাধ্যমের সামনে উপস্থাপন এবং কোন মামলা তদন্ত চলাকালীনসময়ে তদন্ত বিষয়ে কতটুকু তথ্য গণমাধ্যমের সামনে প্রকাশ করা সমিচীন হবে সে সম্পের্কে একটি নীতিমালা অতিদ্রুততার সাথে প্রনয়ন করা বাঞ্ছনীয়। এই নীতিমালা প্রণয়ন ও যথাযথভাবে অনুসরনের জন্য সচিব, জননিরাপত্তা বিভাগ/ সুরক্ষা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং মহা পরিদর্শক, পুলিশ-কে নির্দেশ প্রদান করা হলো।
9 Mahfuzar Rahman Vs. Moshiur Rahman and another On a combined reading of sub-rules (3) and (4) of rule 1 of Order XVII of the Code of Civil Procedure, it appears that the law in clear terms curtailed the power of the Court in granting adjournment prayers of the parties to the suit. If the Court, before or after peremptory hearing of a suit, allows adjournment to a party with costs with a direction to deposit the same within some specified time in exercising power under sub-rules (3) and (4) and the plaintiff fails to comply with such order, the Court shall have no option but to dismiss the suit and in case of defendant, dispose of the suit ex-parte.

It is settled principle that when a provision of law in a statute is amended by a subsequent-Amendment Act and such amended provision comes into force, the subsequent amended provision becomes part of the original statute.
10 মো: হৃদয় বনাম রাষ্ট্র আমাদের বলতে দ্বিধা নেই যে, শিশু আইনের ধারা ১৫ক-এর বিধান বিশেষ ক্ষমতা আইন ১৯৭৪ এর ধারা ২৭, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০-এর ধারা ২৭, এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ এর ধারা ৪৮-সহ বিভিন্ন বিশেষ আইনের সাথে শুধু অসংগতিপূর্ণ নয়, সাংঘর্ষিকও বটে।
শিশু আইনের প্রাধান্যতার কারনে যদি যুক্তি দেয়া হয় যে, থানার দায়েরকৃত মামলা অর্থাৎ জি.আর মামলার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট অপরাধ আমলে গ্রহণ করবেন তাহলে সেটা হবে শিশু আইন প্রনয়নের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের পরিপন্থী। শুধু তাই নয়, একই আইনের অধীনে শিশুর বিরুদ্ধে অপরাধ আমলে গ্রহণ করবেন ম্যাজিস্ট্রেট, আর প্রাপ্ত বয়স্কদের বিরুদ্ধে অপরাধ আমলে গ্রহণ করবে সংশ্লিষ্ট ট্রাইব‌্যুনাল বা ক্ষেত্রমত, আদালত, যা বাস্তবতা বিবর্জিত(impractical) এবং অদ্ভুত বা অস্বাভাবিক(peculiar) একটি প্রস্তাবনা (proposition)
উপরোক্ত আলোচনা এবং সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় আদালতের সুচিন্তিত, পর্যবেক্ষণ ও অভিমত এই যে, শিশু আইনে সাংঘর্ষিক অবস্থা, বিদ্যমান অসংগতি, অস্পষ্টতা ও বিভ্রান্তি অবিলম্বে দূর করা প্রয়োজন; এবং আদালত এটাও প্রত্যাশা করছে যে, এ লক্ষ্যে সরকার দ্রুততার সাথে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। সরকার শিশু আইন সংশোধন অথবা শিশু আইন ২০১৩-এর ধারা ৯৭ -এর বিধান মূলে গেজেটে প্রজ্ঞাপন দ্বারা অস্পষ্টতা ও অসংগতি দূর করতে পারে।
11 Md. Shahinur Rahman vs Government of Bangladesh Directions to provide protocol to all VIPs.
12 মো: রাহেল ওরফে রায়হান বনাম রাষ্ট্র আমাদের অভিজ্ঞতা হলো যে, ধর্ষণ সংক্রান্ত মামলার আসামীগণ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বেপরোয়া ও দুর্দান্ত প্রকৃতির। এরা ভিকটিম ও তাঁর পরিবারের উপর চাপ-প্রভাব বিস্তার করে আদালতে সাক্ষ্য প্রদানে ভয়-ভীতি, প্রলোভন-সহ বিভিন্ন ধরণের কূটকেৌশল অবলম্বন করেন। ক্ষেত্র বিশেষে সালিশের নামে সামাজিক বিচার করে ভিকটিম ও তাঁর পরিবারকে মামলা প্রত্যাহারে বাধ্য এবং আদালতে সাক্ষ্য প্রদানে বিরত থাকার জন্য চাপ প্রদান করে থাকে।
উপরোক্ত অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে আদালতের সুচিন্তিত অভিমত এই যে, অবিলম্বে সাক্ষী সুরক্ষা আইন প্রনয়ন করা প্রয়োজন এবং আদালত এটাও প্রত্যাশা করছে যে, সরকার দ্রুততম সময়ে উক্ত বিষয়ে আইন প্রনয়ন করবে।
13 Begum Khaleda Zia Rejection of the bail application.
14 ইনজামামুল ইসলাম ওরফে জিসান বনাম রাষ্ট্র এমতাবস্থায়, নিম্ন আদালতের বিজ্ঞ বিচারকগণের, যাঁরা উচ্চতর ডিগ্রী অর্জন বা পেশাগত উচ্চতর কোর্স সম্পন্ন করেছেন বা করবেন, বিচারকার্যক্রমে বিশেষত: রায়, আদেশ, অর্ডারশীটে তাঁদের নামের অংশ হিসেবে ডিগ্রী উল্লেখ বাঞ্ছনীয়/কাম্য নয়। এটা প্রত্যশা করা ন্যায্য হবে যে, সংশ্লিষ্ট বিচারকগণ স্বীয় বুদ্ধিমত্তা ও প্রজ্ঞা দিয়ে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে নামের অংশ হিসেবে উচ্চতর ডিগ্রীর ব্যবহার থেকে নিজেদের বিরত রাখবেন।
15 Md. Nazmul Huda Vs. The State and another Moreso, the word `অভিযোগটি অনুসন্ধানের জন্য` as contemplated in section 27(1ka) is very significant. It means that an inquiry should be done on the allegations brought against an accused. It does not mean that inquiry should be done to ascertain whether the complainant went to the police station and he/she was refused by the police.
Further, when upon an inquiry by a competent person the allegations made against an accused is prima facie found to be true then the concerned accused should not be given a go by merely on any hiper technical issue.
16 হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ বনাম বাংলাদেশ সরকার ও অন্যান্য
17 মোঃ সফিকুল ইসলাম বনাম রাষ্ট্র ও অন্য যৌতুকের দাবীসহ যেকোন অজুহাতে স্বামী কর্তৃক স্ত্রীর উপর শারীরিক নির্যাতন নিঃসন্দেহে নিন্দনীয় এবং গর্হিত অপরাধ। এতদ্ সত্ত্বেও উক্ত অপরাধ সংগঠনের পর যদি স্বামী ও স্ত্রী নিজেদের মধ্যে ভুলবোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে দাম্পত্য জীবন অব্যাহত রাখার সংকল্প ব্যক্ত করেন বা রাখেন সেক্ষেত্রে আইনের বিধান যতো কঠিনই হোক না কেন একটি সংসার রক্ষা করার চাইতে সেটি বড় হতে পারে না। একটি সংসার ভেঙ্গে গেলে তার পারিবারিক ও সামাজিক নেতিবাচক দিক সুদূর প্রসারী। এতে শুধু স্বামী-স্ত্রীর সামাজিক, পারিবারিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয়ই ঘটেনা, তাঁদের সন্তান এমনকি নিকট আত্মীয় স্বজনের উপরেও এর গভীর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে, যা পূরণ করা খুব কঠিন কাজ হয়ে পড়ে। এই বাস্তবতায় আমাদের উচিৎ হবে ন্যা য়বিচার নিশ্চিত (to secure ends of justice) করার স্বার্থে অত্র মামলায় বর্তমান বাস্তব অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে একটি সংসার ও দরখাস্তকারী-অভিযোগকারীনির শিশু সন্তানের সুন্দর ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ফৌজদারী কার্যবিধির ৫৬১-ক ধারার প্রদত্ত ক্ষমতাবলে পক্ষদ্বয়ের আপোষের অভিপ্রায়কে গুরুত্ব দিয়ে দন্ডিত দরখাস্তকারীর দন্ড বাতিল ও সাজা মওকুফ করা।
18 Moudud Ahmed, son of late Maulana Momtazuddin Ahmad Vs. The State and another Direction given from the Supreme Court upon the subordinate judiciary is not directory rather it is mandatory.
19 The State Vs. M. Wahidul Haque and others
20 The State Vs. Md. Firoz Alam and others Directives for the lower judiciary how to provide the protocol service to the Supreme Court Judges`
This Site is Visited :